কলকাতায় কাজে ব্যস্ত স্বামী, স্বপ্নে সহবাসে বিহারে গর্ভবতী স্ত্রী!

কাজের সূত্রে সাত মাস ধরে কলকাতায় স্বামী। স্ত্রী জানালেন তিনি গর্ভবতী। সন্তানের বয়স ৭৮ দিন। এটা কীভাবে সম্ভব! এর উত্তর দিয়েছেন স্ত্রী। বললেন, স্বপ্নে স্বামীর সঙ্গে সহবাস হয়েছিল। এ সন্তানের বাবা স্বামীই।

অবৈধ সন্তানকে জায়েজ করতে এমনই উদ্ভট যুক্তি তুলে ধরেছেন ভারতের বিহার রাজ্যের এক নারী। ভারতের একটি সংবাদমাধ্যম সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

স্থানীয়রা জানান, পাঁচবছর আগে বিয়ে হয় ওই দম্পতির। বর্তমানে দেড় বছরের একটি মেয়েও আছে। কিছুদিন আগে ওই গৃহবধূর ননদ লক্ষ্য করেন যে, তার ভাবি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছেন। ভাই কাজের সূত্রে সাতমাস ধরে কলকাতায় থাকার পরেও এই ঘটনা কী করে ঘটতে পারে তা বুঝতে পারছিলেন তিনি। পরে তার ভাই বাড়ি ফিরলে সবকিছু খুলে বলেন। সেই কথা শুনে স্ত্রীকে সন্তানের বিষয়ে জিজ্ঞাসা করেন ওই ব্যক্তি। তখন তার স্ত্রী তাকে বলেন, ‘স্বপ্নে তোমাকে দেখেছিলাম এবং সহবাস হয়। তার ফলেই গর্ভবতী হয়ে পড়েছি।’ এই কথা শুনে আকাশ থেকে পড়েন তার স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোক। পরে বিষয়টি স্থানীয় পঞ্চায়েত পর্যন্ত গড়ায়।

কিন্তু সেখানেও বিষয়টির কোনো সুরাহা না হওয়ায় বিহারের ডিআইজির সঙ্গে দেখা করেন ননদ। তারপর ডাক্তাররা পরীক্ষা করে দেখেন, গর্ভে থাকা শিশুটির বয়স ৭৮ দিন। সন্তানটি কার তা জানার জন্য স্ত্রীকে চাপ দিতে শুরু করেন স্বামী। কিন্তু, তখনও মুখ খুলতে চাননি তিনি। একপর্যায়ে বলতে বাধ্য হন, ‘তোমরা যদি আমাকে এই বাড়িতে রাখতে চাও তো ভালো। তা নাহলে তোমাদের মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দেব।

পরে স্বামীর পরিবারের লোকজন তাকে বাড়ি থেকে বের করে দেন। তাদের অভিযোগ, পূর্ব পরিচিত এক যুবকের সঙ্গে পরকীয়াতে জড়িয়ে পড়েই অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছেন ওই গৃহবধূ।

কমেন্ট করুণ

দয়া করে আপনার কমেন্ট করুণ
দয়া করে আপনার নাম দিন